ঘাটাইলে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা ঠেকাতে গিয়ে দুই পুলিশ সদস্য আহত

0

ঘাটাইল প্রতিনিধি : জেলার ঘাটাইল উপজেলার নাটশালা ও কাশতলা গ্রামের তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামিদপুর বাজার এলাকায় দু’দল গ্রামবাসীর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষ ও দোকান পাট ভাঙচুরের ঘটেছে।

দু গ্রামবাসীর উত্তেজনা ঠেকাতে গিয়ে আহত হয়েছেন ঘাটাইল থানার দুই পুলিশ সদস্য। এরা হচ্ছেন, কনস্টেবল এরশাদ ও সুলতান। তাদের ঘাটাইল থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

জানাযায়, ঘাটাইলে দিঘলকান্দী ইউনিয়েনের নাটশালা ও দিগড় ইউনিয়নের কাশতলা গ্রামের কয়েক যুবকের সাথে মারামারি হয়। এনিয়ে দু গ্রামবাসীর মধ্যে উত্তেজনা ঘনিভুত হয়। এর আগে হামিদপুর বাজারে কয়েক দফায় দাওয়া পাল্টা দাওয়ার মতো ঘটনা ঘটে। এক পর্যায়ে ঘাটাইল থানা পুলিশ দু ইউনিয়নের চেয়ারম্যানকে ডেকে মিমাংসার আহ্বান করেন।

এ নিয়েই বুধবার বিকালে হামিদপুর মাদ্রাসায় মাঠে দু ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের সমন্নয়ে উভয় গ্রামবাসীর উপস্থিতিতে শালিসী বৈঠক বসে। শালিস চলাকালীন সময়ে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গ মাদক নির্মুলের জন্য ঐক্য মত্য পোষন করে। এরই মধ্যে দিগলকান্দি ও দিঘর ইউনিয়েনে জনৈক কয়েক ব্যাক্তি মাদক ব্যবসায়িদের পক্ষ্যে সাফাই গেয়ে বক্তব্য দেন। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনার সুত্র পাত হয়।

শালিশী বৈঠকে উত্তেজিত জনতা বাজারে দু’দল গ্রামবাসীর ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, সংঘর্ষ ও দোকান পাটের উপর হামলা চালায় ও ভাংচুর করে। এতে উভয় পক্ষের উত্তেজনা ঠেকাতে গেলে উত্তেজিত জনতার হাতে দু পুলিশ কনস্টেবল আহত হয়।

জানতে চাইলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গোপালপুর সার্কেল রামানন্দ সরকার বলেন, আইন শৃঙ্গলা নিয়োজিত পুলিশ সদস্যরা উত্তেজিত জনতাকে নিষেধ করলে তাদের উপর চড়াও হয়। এক পর্যায়ে পুলিশের উপর হামলা করে। এতে দু পুলিশ আহত হয়ে ঘাটাইল থানা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে বলে জানান। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে

Comments

comments

Share.

Leave A Reply