ঢাকা বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৮

Mountain View



টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে লতিফ সিদ্দিকী, বললেন উপনির্বাচনে অংশ নেবো না

Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট : টাঙ্গাইল-৪ আসনের উপনির্বাচনে অংশ নেবেন না বলে জানিয়েছেন ওই সংসদীয় আসন থেকে সদ্য পদত্যাগ করা আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। শুক্রবার বিকেলে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানোর পর স্থানীয় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।
11960014_1635202790073133_3283203702128652276_nএ সময় লতিফ সিদ্দিকী আরও জানান, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই আসনে যাকে মনোনয়ন দেবেন তার পক্ষে তিনি কাজ করবেন।

পবিত্র হজ ও তাবলিগ নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্যের পর মন্ত্রীত্ব এবং আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত আবদুল লতিফ সিদ্দিকী গত মঙ্গলবার সংসদ অধিবেশনে যোগ দিয়ে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন। বৃহস্পতিবার স্পিকার ওই আসন শূন্য ঘোষণা করেন।

লতিফ সিদ্দিকী শুক্রবার টুঙ্গিপাড়া পৌঁছে টাঙ্গাইলের কালিহাতি উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধের বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। তিনি পবিত্র ফাতেহা পাঠ ও বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফেরাত কামনায় দোয়া-মোনাজাত করেন।

পরে লতিফ সিদ্দিকী বলেন, ‘যারা গণতন্ত্র, মানবতা, মনুষত্বে বিশ্বাস করেন তাদের উচিত শেখ হাসিনার প্রতি বিশ্বাস রাখা। প্রধানমন্ত্রী দেশ-জাতিকে উন্নতি ও সমৃদ্ধির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।’

সমাধিতে শ্রদ্ধা জানানোর পর বঙ্গবন্ধু ভবনে প্রবেশের সময় তত্ত্বাবধায়ক নির্মলকে জড়িয়ে ধরে কেঁদে ফেলেন লতিফ সিদ্দিকী। তিনি বলেন, ‘দীর্ঘ দিন পর আমি আজই প্রথম প্রকাশ্যে এসেছি। আর প্রকাশ্যে এসেই বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ছুটে এসেছি। আমি জাতির কাছে ক্ষমা চেয়ে সংসদ থেকে পদত্যাগ করেছি।

এর আগে বিকেল সোয়া ৪টায় লতিফ সিদ্দিকী তার নির্বাচনী এলাকার নেতা-কর্মীদের সাথে নিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধ বেদীতে পুষ্পস্তবক অর্পন করে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং ফাতেহা পাঠ, কবর জিয়ারত ও বিশেষ মোনাজাত করেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী এমদাদুল হক, কালিহাতি উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল মজিদ তোতা, আনোয়ার হোসেন মোল্যা, ঝিন্টু সিদ্দিকী, আলী আকবার মিয়া, জিন্নাহ মিয়া, মিজানুর রহমান খান রুবেল, রনজিৎ সূত্রধর প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

হজ্ব, তাবলিগ-জামাত ও মোহাম্মদ (সঃ) কে নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেওয়ায় লতিফ সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে দেশ জুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। দেশের অনেক স্থানে তার বিরুদ্ধে মামলাও হয়। এ ঘটনায় তিনি মন্ত্রীত্ব হারান এবং কারাগারে যান। গত ১ সেপ্টেম্বর সংসদ সদস্য পদ থেকে তিনি পদত্যাগ করেন। পদত্যাগ করার পর শুক্রবার তিনি জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আসেন। – See more at: http://www.kalerkantho.com/online/country-news/2015/09/04/264716#sthash.aODUYz7s.dpuf

দৈনিক সমকাল

ফেসবুক মন্তব্য