ঢাকা রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮

Mountain View



নিখোঁজের চার দিন পর ঘাটাইলের জঙ্গল থেকে স্কুল ছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার

Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঘাটাইল : নিখোঁজের চার দিন পর জঙ্গল থেকে আতিক হাসান (১৫) নামে স্কুল ছাত্রের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে ঘাটাইল থানার পুলিশ।বুধবার সকালে ঘাটাইল উপজেলার দেওপাড়া পাহাড়িয়া এলাকার চাম্বলতলা জঙ্গল থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। আতিক হাসান বাড়ি সখিপুর উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে। তার বাবা বিল্লাল হোসেন দুবাই প্রবাসী। সে কুতুবপুর রওশন উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্র। পুলিশ এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তার ২ বন্ধুকে আটক করা হয়েছে।

12969214_1689052861347370_843352517_n

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, গত ২ এপ্রিল সকালে আতিক প্রতিদিনের ন্যায় স্কুলে যায়। এই দিন স্কুলে থেকে যথা সময়ে বাড়ি ফিরে না আসায় পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন জায়গায় খোজাখজিঁ করে। ৪ এপ্রিল সখিপুর থানায় এ ব্যাপারে আতিকের মা আয়েশা বেগম জিডি করে। ৫ এপ্রিল আতিকের বন্ধু ওয়াসিম ও নাহিদ রাসেলের কাছে আতিকের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন পায় গ্রামবাসী। সেই সূত্র ধরে ৫ এপ্রিল রাতে ওয়াসিম ও নাহিদ রাসেলকে গ্রামবাসী আটক করে সখিপুর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে। ওয়াসিম কুতুবপুর রওশন উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেনীর ছাত্র তার বাবার নাম আঃ গনি এবং নাহিদ রাসেল কুতুবপুর বিকে কলেজের এইচএসসি পরীক্ষার্থী। দুজনের বাড়িই সখিপুর উপজেলার কুতুবপুর গ্রামে।

পরে পুলিশ তাদের দেয়া তথ্য মতে ঘাটাইল উপজেলার দেওপাড়া পাহাড়িয়া চাম্বলতলা এলকার জঙ্গল থেকে আতিকের গলাকাটা লাশটি উদ্ধার করে। গতকাল বুধবার আতিকের মা আয়েশা বেগম বাদী হয়ে ঘাটাইল থানায় এব্যাপারে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। নিহতের পরিবারের দাবী আতিককে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে । হত্যার পর তার মৃত্যু নিশ্চিত করার জন্য গলাকাটা হয়েছে ।

এ ব্যাপারে ঘাটাইল থানাার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ কামাল হোসেন জানান, তার লাশ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে আতিকের দুই বন্ধুকে গ্রেপ্তার হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। দ্রুতই ঘটনার সাথে জড়িত অন্যদের আট করা সম্ভব হবে।

ফেসবুক মন্তব্য