ঢাকা শুক্রবার, মে ২৪, ২০১৯

Mountain View



তার ৭ ফিট চওড়া কোমর !

Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট : মেয়েদের সৌন্দর্যে কোমরের বেশ ভালো ভূমিকা রয়েছে। মেয়েদের দৈহিক সৌন্দর্য সম্পর্কে ছেলেদের মুখে প্রচলিত ৩৪-২৪-৩৪ আকার থেকে কোমরের প্রশস্ততার গুরত্ব কিছুটা হলেও বোঝা যায়। কিন্তু সারাহ ম্যাসি নামের যে নারীর কোমর দেখলে কোমর সম্পর্কে প্রশস্তির আগে একটু ভেবে দেখবেন সবাই।

৩৩ বছর বয়েসী সারাহ ম্যাসি আমেরিকার শিকাগোর বাসিন্দা। সেটা অসাধারণ কিছুই নয়। দুই সন্তানের এই মায়ের সবচেয়ে অদ্ভুত দিকটি হলো তার কোমর। সারাহর ওজন ২০৩ কেজি এবং তার কোমরের মাপ প্রায় ৭ ফিট ! শিকাগোর যে বাড়িতে তিনি থাকেন, সেখানে তার চলাচলের জন্য আলাদা করে দরজাগুলোকে চওড়া করার দরকার হয়েছে। কোনো রকমের দ্বিধা না করেই সারাহ এটাও জানিয়েছেন যে, একবার তার ভারে থিয়েটারের টয়লেট ভেঙে পড়ার পর বিশেষভাবে মজবুত টয়লেটও নির্মানের দরকার পড়েছে।

স্বামীর সঙ্গে সারাহ !

স্বামীর সঙ্গে সারাহ !

 নিজের এই আলাদা দিকটই সম্পর্কে অনুভূতি কি, এমনটা জানতে চাইলে সারাহ বলেন, ‘আমাকে দেখলে সবাই ভালো হোক, খারাপ হোক- একটা মন্তব্য করবেই। আগে নিজেকে নিয়ে করা এই মন্তব্যগুলো শুনে খুব লজ্জা পেতাম। কিন্তু এখন আমি মাথা উঁচু করেই চলি। স্কুলে থাকতে আমাকে ডাম্প ট্রাক বলে খেপাতো সবাই। এমন কিছু সময় গেছে যখন মানুষ আমাকে নিয়ে কি বলে সেটা ভেবে খুব ভয় পেতাম। কারণ জন্মগত এই ত্রুটিকে আমি ফেলে দিতে পারবো না। sarahকিন্তু এখন আমি নিজের এই অনন্য দিকটি নিয়ে রীতিমত গর্বিত।’

কোমরের মাপ সারাহর এই বিশাল দিকটি মূলত বংশ ধারা থেকেই এসেছে। দিনে ১৫০০ থেকে ২০০০ ক্যালরির বেশি খান না তিনি, তাই খেয়েদেয়েই তার এই অবস্থা এমনটা ভাবাটা হবে বিশাল ভুল। বিশাল কোমর নিয়ে যেখানে তার নড়াচড়াতেই সমস্যা, সেখানে কর্মক্ষেত্রে যাওয়া-আসা করাটা তো প্রায় অসম্ভব। তাই আমেরিকার সরকারের কাছ থেকে মাসে মাসে ১২৩৬ ডলার করে ভাতা পান সারাহ। সৌজন্যে : সম্পূর্ণ রঙিন

ফেসবুক মন্তব্য