ঢাকা মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

Mountain View



মধুপুরে আ’লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীর শোভাযাত্রায় হামলা

Print Friendly, PDF & Email

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী কেন্দ্রীয় কৃষক লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মিজানুর রহমানের মোটরসাইকেল শোভাযাত্রায় হামলা ও ভাঙচুর চালানো হয়েছে। এতে অন্তত পাঁচজন আহত হয়েছেন। শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে জামালপুর রোডে মধুপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের কাছে এ হামলা হয়। মিজানুর এজন্য স্থানীয় আওয়ামী লীগকে দায়ী করলেও তাদের পক্ষ থেকে অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মিজানুর রহমান তার নিজের এলাকা ধনবাড়ীর বানিয়াজানে একটি লাইব্রেরি উদ্বোধন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মধুপুর হয়ে ধনবাড়ী যাচ্ছিলেন। তাকে বরণ করতে দুই শতাধিক মোটরসাইকেলের একটি বহর মধুপুর শহরে প্রবেশ করে।
মিজানুর রহমান অভিযোগ করেন, বহরের নেতাকর্মীরা স্লোগান দিতে দিতে আওয়ামী লীগ অফিসের কাছে এলে দলের স্থানীয় সভাপতি খন্দকার শফিউদ্দিন মনির কর্মী-সমর্থকরা তাদের ওপর হামলা চালিয়ে মোটরসাইকেল ভাঙচুর করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
মধুপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসতিয়াক আহমেদ সজীব হামলার দায় অস্বীকার করে বলেন, ড. আব্দুর রাজ্জাক এ আসনে বিকল্পহীন আওয়ামী লীগের প্রার্থী। মাঠ পর্যায়ের কর্মীদের সঙ্গে যোগসূত্রহীন বিত্তশালী কেউ এসে হঠাৎ দলের প্রার্থী হতে অর্থ খরচ করে শোডাউন করবে, এতে বাধা আসতেই পারে।
মধুপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খন্দকার শফিউদ্দিন মনি জানান, এই আসনে আওয়ামী লীগের মিজানুর রহমান নামে কোনো প্রার্থীর সঙ্গে আমার পরিচয় নেই। শুনেছি শুক্রবার বিকালে তার ভাড়া করা কর্মীদের একটি মোটরসাইকেলের শোডাউনে হামলা হয়েছে। সভাপতির সমর্থকদের বিরুদ্ধে ওঠা এ অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি স্থানীয় জনসাধারণের কাজ বলে দাবি করেছেন।
মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি-তদন্ত) নজরুল ইসলাম জানান, হামলার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সেখানে ২-৩টি মোটর সাইকেল ভাঙচুর হওয়ার কথা শুনেছি। কিন্তু ভাড়া করা সেসব মোটরসাইকেল কে বা কারা নিয়েছে জানা নেই। এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ বা মামলা দায়ের করা হয়নি।
পরে বানিয়াজান বিবিজি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সন্ধ্যায় মনসুর আলী পাঠাগার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মিজানুর রহমান বলেন, হামলা করে আমাকে বাধা দেওয়া যাবে না। হামলার সময় পুলিশের ভূমিকা ছিল রহস্যজনক।

ফেসবুক মন্তব্য