ঢাকা মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৮

Mountain View



এবার ব্রাতেও যুক্ত হলো টুইটার !

Print Friendly, PDF & Email
ডেস্ক রিপোর্ট : সোশ্যাল মিডিয়ার আধিপত্য বিস্তার এইবার ছাড়িয়ে গেল নিজস্ব পরিধেয় বস্তুতেও। এইবার বিশ্বখ্যাত  নির্মাতা সংস্থা নেসলে ফিটনেস বাজারে নিয়ে এসেছে উচ্চ প্রযুক্তির হাইটেক ট্যুইটিং ব্রা। নব্য প্রযুক্তির এই নয়া বক্ষ বন্ধনী সম্বন্ধে নেসলের বিজ্ঞাপন নির্মাতা সংস্থা অগিলভি আথেন্স খুব জোরেশোরেই ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে পরিচিতি করাচ্ছে তাদের এই প্রযুক্তি সম্বন্ধে।

অভিনব এই ব্রা-এর  অদ্ভুত নামকরণ সম্পর্কে জানতে চাইলে নির্মাতা সংস্থা বলেন, বর্তমান প্রযুক্তির উৎকর্ষতার দিকে লক্ষ রেখেই এতে রাখা হয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি, যার মাধ্যমে এই গোলাপি রঙের বক্ষ বন্ধনীটি যিনি ব্যবহার করবেন তিনি এটি খোলামাত্র মাধ্যমে

ট্যুইট হয়ে যাবে সাথে সাথেই। সংস্থাটি আরও জানিয়েছে, একটি তৈরি করা হবে খুবই ছোট্ট অত্যাধুনিক স্যুইচ বা সেন্সর ব্যবহার করে যেটি থাকবে বক্ষ বন্ধনীর হুকের ঠিক নিচে । যার ফলে বক্ষ বন্ধনীটি পরিধানকারী মহিলাটি যতবার হুকটি খুলবেন ততবারই ব্যবহারকারীর মোবাইল ফোনে একটি সঙ্কেত পৌঁছে যাবে ।

সমস্ত প্রক্রিয়াটি নিয়ন্ত্রিত হবে একটি সার্ভার থেকে যেখান থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মোবাইলে সঙ্কেত চলে যাবে। ওই বক্ষ বন্ধনী পরিধানকারী মহিলার হয়ে ট্যুইট করে দেবে। সাধারণত  সার্ভারের কোন বাক্য প্রেরন করতে না পারলেও ট্যুইটে পাঠাবে সবার বোঝার মতো বিশেষ একটি সঙ্কেত। যার কারনে সেন্সরটি সব সময় সব সময় সক্রিয় থাকবে সাথে সাথে যুক্ত থাকা মোবাইল ফোনটিকেও। তবে এক্ষেত্রে ট্যুইটারের অ্যাকাউন্টটিও চালু রাখা বাধ্যতামূলক। যেহেতু এই তিনটি জিনিসকে চালু রাখা অভ্যেসের ব্যাপার।তাইএটি মোটেও কঠিন কাজের আওতাভুক্ত নয়।


সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় দেখা গেছে বর্তমান বিশ্বে দ্রুতগতিতে সব বয়সের মহিলাদের মধ্যে স্তন ক্যানার বেড়েই চলেছে বিশেষ করে তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলিতে মহামারীর আকার নিতে চলেছে এই রোগটি । তাই এই সংস্থাটি তাদের এই ট্যুইটিং ব্রা এর মাধ্যমে ভারত ও বাংলাদেশের মতো তৃতীয় বিশ্বের জনবহুল দেশে সব বয়সী নারীদের মধ্যে স্তন ক্যানসার নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে এই আশু উদ্যোগ হাতে নিয়েছে।


গবেষণায় দেখা গেছে একটি নির্দিষ্ট সময় অন্তর নিজেদের স্তনের চেক আপ করানোর প্রতি অনীহা থাকে বেশিরভাগ মহিলাই। যার কারণস্বরূপ তাদের মধ্যে স্তনের মধ্যে ঘটিত ছোটখাট সমস্যা গুলো যেমনঃ রক্ত সংবহন, লাম্প, ব্যথা ইত্যাদি নিয়ে কোন মাথাব্যাথা থাকে নাহ। সমস্য প্রকট হলে তখন হুশ হয় কিন্তু ততক্ষণে হয়ে যায় অনেক দেরি। আর কেউ তাঁদের চেক আপ করানোর ব্যাপারে স্মরণ করান না। আর সব ব্যস্ততার ফাকে এইসবের দিকে নজর দেয়ার কথাটিও ভুলে যান তারা।


এক্ষেত্রে যখনই ব্যবহারকারী নিজের বক্ষ বন্ধনী ও অন্তর্বাসটি খুলবেন তখনই সেটা ট্যুইট হয়ে যাবে। আর ট্যুইট হওয়া মাত্র ওই ভদ্রমহিলার ব্রেস্ট চেক আপ করার কথা মনে হবে। আর সেটা বার বার রিমাইন্ডার হয়ে যাবে তাঁর কাছে ট্যুইটের মাধ্যমে। যার ফলে দৃষ্টিগোচর হবে তার চেক আপের ব্যাপারটি।  এই ব্যাপারে নেসলে ফিটনেস ও অগলভি আরও বলেন,


“বিশ্বে এই ধরনের অন্তর্বাস এই প্রথম যেটি আপনাকে বার বার মনে করাবে মাসে একবার করে অন্তত আপনার স্তন পরীক্ষার সময় এসে গিয়েছে। স্তন ক্যানসার প্রতিরোধ করার জন্যই এই দাওয়াই। এতে ক্রেতারা ভালই সাড়া দেবে বলে মনে করছেন হাই টেক ব্রা-এর নির্মাতারা”

ফেসবুক মন্তব্য