ঢাকা রবিবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৮

Mountain View



বুদ্ধিমত্তা ধ্বংস করে ৬ অভ্যাস

Print Friendly, PDF & Email
ডেস্ক রিপোর্ট: বুদ্ধিমত্তা ধ্বংস করে ৬ অভ্যাসবুদ্ধিমত্তাকে ধংস করে এমন অনেক অভ্যাস আছে। মানুষ ইচ্ছা বা অনিচ্ছায় এসব অভ্যাসে অভ্যস্থ হয়। মারাত্মক ক্ষতিকর এই অভ্যাসগুলো হচ্ছে-

নিজেকে বিশেষজ্ঞ ভাবা: বিশেষজ্ঞ মনোভাব হচ্ছে আপনার বুদ্ধিমত্তাকে হত্যা করার একটি বড় অভ্যাস যা শুধু আপনার প্রগতিশীলতাকে হত্যাই করে না আপনাকে মানুষের সামনে ছোটও করে তুলে। যখন আপনি নিজেকে বিশেষজ্ঞ ভাবা শুরু করে দিবেন, তখনই আপনার শেখার আগ্রহ মরে যাবে।
আপনার আর কখনই অন্যের কোন কথা শোনার ইচ্ছা থাকবে না এবং অভিজ্ঞতা থেকে শেখার আগ্রহ থাকবে না। এটা মূলত আপনাকে পেছনে ঠেলে দিবে এবং আপনার বুদ্ধিমত্তাকে গলাটিপে হত্যা করবে। আপনি বিষয়টি পরিস্কার হোন যে আপনি সব বিষয়ে পারদর্শী নন এবং একজন মানুষ সব বিষয়ে পারদর্শী হতে পারেনা।
ভয়: আপনি নতুন কিছু করতে যাওয়ার আগে যদি ভাবেন যে,আপনি ব্যর্থ হবেন তাহলে আপনি কখনই সেটা করতে পারবেন না। আপনি হয়তো একাধিকবার ব্যর্থ হবেন কিন্তু হাল ছেড়ে দিলে আপনি প্রকৃতপক্ষে কখনই আর দাঁড়াতে পারবেন না। আপনি যদি ভয়কে প্রশ্রয় দেন এবং চেষ্টা না করেন তাহলে কখনই আপনি ভয়কে জয় করতে পারবেন না।
আত্মবিশ্বাসের অভাব: এটা ভয়ের মতো মারাত্মক ক্ষতিকর একটি। আপনি যদি ভেবে বসে থাকেন যে, আপনাকে দিয়ে এটা কখনোই সম্ভব না তাহলে ভাবতে হবে আপনার আত্মবিশ্বাসে ঘাটতি আছে। আপনি কখনোই নতুন কিছু শিখতে পারবেন না বা নতুন কিছু উপহার দিতে পারবেন না।
প্রতিবন্ধকতা দাঁড় করানো: যে কোনো কাজে হাত দিলে সেখানে সীমাবদ্ধতা থাকবেই। কিন্তু যখন আপনি এমন কিছু প্রতিবন্ধকতা দাঁড় করাবেন যেগুলো আসলেই গৌণ, সেটা আপনার বুদ্ধিমত্তাকে ধ্বংস করবে। যখন আপনি এই সব প্রতিবন্ধকতা দাঁড় করিয়ে নিজেকে সেই কাজ থেকে বিরত রাখবেন, তখন এটা আপনাকে পেয়ে বসবে। আপনি কখনই কোনো নতুন কাজে হাত দিতে পারবেন না। সেই প্রতিবন্ধকতা গুলো আপনাকে ঘিরে ধরবে। এবং আপনি নিজের যোগ্যতার মূল্যায়ন করতে পারবেন না এবং নতুন কিছু শিখতে পারবেন না। এবং আপনি একজন সফল মানুষ হিসেবে নিজেকে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন না।
মাদকাসক্তি: নেশা করলে বুদ্ধি খুলে এমন খোড়া যুক্তি নেশাআসক্তদের। কিন্তু এই নেশা মানুষের বুদ্ধিমত্তাকে খেয়ে ফেলে। তাই মস্তিষ্ক ঠিক রাখতে নেশাকে না বলুন। মাদকমুক্ত থাকুন।
মূল্যায়ন করা: এটা কি অসম্ভব যে, আপনি একই সঙ্গে কোন কিছু সৃষ্টি করবেন এবং তার মুল্যায়ন করবেন। এটা নিশ্চয়ই সম্ভব নয় যে আপনি একই সঙ্গে উপরে উঠবেন এবং নীচে নামবেন। তাই কোন কিছু সৃষ্টি করার আগেই তার মূল্যায়ন করতে থাকলে আপনার কাজটি আর এগুবে না। ধরুন আপনি কোন একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছেন। আপনি কি প্রথমেই মূল্যায়ন করতে পারবেন যে আপনার প্রকল্পটি কিভাবে মূল্যায়ন হবে। তাই যে কোনো কাজে হাত দিলে সেটা আগে শেষ করুন। তারপর তার মূল্যায়ন করুন। 

ফেসবুক মন্তব্য