ঢাকা রবিবার, নভেম্বর ১৮, ২০১৮

Mountain View



কবি মুস্তফা হাবীব অতীশ দীপঙ্কর স্বর্ণপদক ২০১৩ এ ভূষিত

Print Friendly, PDF & Email
ডেস্ক রিপোর্ট: নিসর্গ রমণী কাব্যগ্রন্থের জন্য তাকে এবছর অতীশ দীপঙ্কর স্বর্ণপদকে মনোনীত করেছে অতীশ দীপঙ্কর গবেষণা পরিষদ। খুব শিগগিরই আনুষ্ঠানিকভাবে এ পদক প্রদান করা হবে।

ছবি: কবি মুস্তফা হাবীব
মুস্তফা হাবীব আশির দশকের একজন শক্তিশালী প্রতিবাদী ও রোমান্টিক কবি। জন্ম ১৯৬৫ সালের ১ জানুয়ারি বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলাধীন ইসলামপুর গ্রামের এক সভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে। পিতা মুন্সী আবদুল লতিফ ও মাতা রেনুয়া বেগম। ১৯৮১ সালে ‘জন্মেছি যেখানে’ শিরোনামে দৈনিক আজাদ পত্রিকায় প্রথম কবিতা প্রকাশিত হয়। সেই থেকে তিনি কবিতাকর্ম এবং সংস্কৃতিবিষয়ক কর্মকান্ডে নিজেকে জড়িয়ে রাখেন। ১৯৮৭ তে আগামী প্রকাশনী প্রকাশ করে তার প্রথম কাব্য ‘স্বপ্নের মুখোমুখি জীবন’। স্বৈরাশাসনের বিরুদ্ধে তৎকালীন অগ্নিঝরা আন্দোলনের সম্মুখভাগের অভিযাত্রী ছিলেন তিনি। তিনি কবিতায় উচ্চারণ করেন ‘এসো জনগণ চিত্তবিভ্রম’ মাতালের শাসন লঙ্ঘন করি। এ ছাড়াও একটি অকবির কবিতা, এখন আমি জ্বলছি অসীম অনলে, লাশ চাই, বায়ান্নের ঝড়, বিশ্বাসঘাতক এই দেশকে বলছি এবং একটু দাঁড়াও সুমিত্রা শিরোনামে কবিতা লিখে ব্যাপক আলোচিত হন। প্রকাশিত গ্রন্থ : স্বপ্নের মুখোমুখি জীবন (কাব্য), একটু দাঁড়াও সুমিত্রা (কাব্য), নিসর্গ রমণী (কাব্য), প্রেমের কাঁটা ও কুসুম (কাব্য), নীল মণিদের ঘুড়ি (কিশোর কাব্য) এবং ময়ুর নীলিমা (গল্প গ্রন্থ)।
তিনি ১৯৮৮ সালে সাংস্কৃতিক খবর আয়োজিত বাংলা কবিতা উৎসবে কলকাতা শিশির মঞ্চ, মেদেনীপুর, হলদিয়া টাউনশিপ, উষিষ্যার রাউর কেল্লার জার্মান ক্লাবে সংবর্ধিত হন। তিনি সাহিত্যপত্র অরুনিম এর সম্পাদক। কবিতার অসমান্য অবদানের জন্য কবি আবু জাফর ওবায়দুল্লাহ পুরস্কার-২০০৯ এবং বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর সম্মাননা ২০১০ লাভ করেন।

ফেসবুক মন্তব্য