ঢাকা শুক্রবার, আগস্ট ১৭, ২০১৮

Mountain View



নারী সঙ্গীকে যে ৫ টি কথা বলতে নেই !

Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট : পৃথিবীতে সবচেয়ে নারীবিদ্বেষী কারা জানেন? কবি সাহিত্যিকেরা। একটু ভালো করে খেয়াল করে দেখবেন, কবিরা যেমন তাদের কবিতাগুলোতে নারীদের খুব রমরমা করে উপস্থাপন করেন, তেমনি নারীদের নিয়ে সবচেয়ে বেশি সতর্কবার্তা তারাই প্রচার করেন । সাথে এটাও বলে দেন কিভাবে একজন নারীকে নিয়ন্ত্রণের মধ্য রেখে তার সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলা যায়।

আপনার স্ত্রী কিংবা গার্লফ্রেন্ড যেই হোক কেন, তার সাথে ভালো সম্পর্ক রাখতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে কিছু বিষয় সতর্কতার সহিত গোপন রাখতে হবে। আসুন জেনে নেই সতর্কতার ঐ সব ক্ষেত্রগুলোঃ

কিছু কথা থাক না গোপনঃ অতীতে আপনার মন লাগাম ছেড়ে যদি কারো কাছে গিয়েও থাকে, তবে সাবধান থাকবেন আপনার মুখ থেকেও যেন সে কথা কখনও ছুটে না যায়। তবে কিছুদিন মেশার পর যদি তাকে সুবিধাজনক মনে হয় তবে বলাটাই ভাল, এতে সম্পর্ক সৃষ্টি হওয়ার পর ভাঙবে না। অসততার জন্যে নয়, প্রেয়সীর মনে আঘাত না লাগার স্বার্থেও সেসব কথা একটু রেখেঢেকে বলাই ভালো।

তুমি তোমার মতোইঃ কারো সাথে নেতিবাচক তুলনা করবেন না। যেমন তোমার ঐ বাজে দিকগুলো তোমার মায়ের মতো, বোনের মতো। এতে সম্পর্ক কেবল বৈরিই হবে। প্রশংসতাতেও কাছের কোনো নারীর তুলনা না করাটাই উত্তম। প্রেয়সীকে নিজেই নিজের তুলনা হিসেবে রেখে দিন।

তুমি ভালো, ভালো, ভালো.. : অতিরিক্ত প্রশংসা না করা। ভালো গুণ থাকলে সেটার অবশ্যই প্রশংসা করবেন। তবে সেটা যেন কখনই মাত্রাতিরিক্ত না হয়। প্রশংসায় মেয়েরা বেশি খুশি হয়, এমনটা ভাবলেও অতিরিক্ত অংশটুকু তারা সহজেই বুঝতে পারে।

মাতুন চুলের মায়ায়ঃ মেয়েরা সবসময় তাদের চুল সুন্দর করে রাখার চেষ্টা করে। তার চুলের স্টাইলটা যদি আপনার ভালো নাও লাগে, চেপে যান। মনে রাখবেন মেয়েদের কাছে চুল কিন্তু শুধু চুলই না। আরও অনেক কিছু।

ভালোবাসা ছেঁটে ফেলুনঃ ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’- চেষ্টা করুন কথায় কথায় বাক্যটি না বলার। আপনার ভালোবাসার অতিরিক্ত প্রদর্শন তার কাছে আপনার দুর্বলতার বহিঃপ্রকাশ মনে হতে পারে।

মনে রাখবেন, একজন মানুষের সাথে সম্পর্ক গড়ে ওঠে মূলত মনের কথাগুলো বিনিময়ে মাধ্যমে। তবে মানুষটি যদি নারী হয়, তবে ভালো সম্পর্কের প্রধান অস্ত্র হবে কথা বিনিময়ে সতর্কতা ও গোপনীয়তা। সম্পুর্ণ রঙিন

ফেসবুক মন্তব্য