ঢাকা মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১৮

Mountain View



মির্জাপুরে গার্মেন্টস্ কর্মীকে গণধর্ষণ

Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল : টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে এক গার্মেন্টস কর্মীকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করেছে দুস্কৃতকারীরা। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ লিটন (২৪) নামে এক টেম্পু চালককে আটক করেছে। আজ সোমবার ভোর রাতে উপজেলার গোড়াই শিল্পাঞ্চলের হাটুভাঙা রোড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

ধর্ষণের শিকার ওই গার্মেন্টস কর্মীকে পুলিশ অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

পুলিশ জানায়, সোমবার রাত পৌনে তিনটায় ওই গার্মেন্টস কর্মী তার চাচার সাথে বাস যোগে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের হাটুভাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নামেন। উপজেলার বাশঁতৈল ইউনিয়নের তালতলা গ্রামের পিকআপ ভ্যান চালক মো. জালাল (২৬), সৈয়দপুর গ্রামের জনি (২৫), ক্যাডেট কলেজ এলাকার মৃদুল (২৫), হাটুভাঙা এলাকার মুরাদ (২৪), মাটিয়াখোলা গ্রামের লিটন (২৫) ও কামারপাড়া গ্রামের জাহিদ (২৫) মিলে ওই গার্মেন্ট কর্মীকে তার চাচার কাছ থেকে জোর পূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে পাশ্ববর্তী একটি স’মিলে নিয়ে গিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় প্রহরীরা মেয়েটিকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়।

পুলিশ ওই গার্মেন্টস কর্মীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে লিটন নামে এক টেম্পু চালককে আটক করেছে পুলিশ। গণধর্ষণের শিকার ওই গার্মেন্টস কর্মী গোড়াই শিল্পাঞ্চলের একটি কারখানায় চাকুরী করে বলে জানা গেছে।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আজগর ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরও ৫ জনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডাক্তার মোমেনুর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, হাসপাতালে ভর্তি ধর্ষিতা প্রচন্ড ব্যাথায় কাতরাচ্ছেন। আলামত পরীক্ষার জন্য তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

ফেসবুক মন্তব্য