ঢাকা মঙ্গলবার, নভেম্বর ১৩, ২০১৮

Mountain View



কোপেনহেগেন ‘বাইক শো ২০১৫’ তে বাংলাদেশী সাইকেল ‘b’fair’

Print Friendly, PDF & Email

Copenhagen Bike Show Logoবিশেষ সংবাদদাতা:  কোপেনহেগেন ‘বাইক শো ২০১৫’ তে – প্রথমবারের মত, বাংলাদেশের তৈরী বাই-সাইকেল ‘b’fair’প্রদর্শিত হচ্ছে। প্রদর্শনীতে ‘b’fair’এর শুভ উদ্ভোধন করবেন ডেনমার্কে বাংলাদেশ নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মুহম্মদ গোলাম সরোয়ার। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের অন্তর্ভূক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতগণ, ডেনমার্কের বিখ্যাত সাইক্লিস্ট ও স্পোর্টস আইকন ওলে রিটটার এবং b’fair bike এর ডিজাইনার এবং স্থপতি টবিয়াস ইয়াকবসেন এবং সেখানে বসবাসরত বাঙ্গালি সমাজের প্রতিনিধিগণ।

Copenhagen Bike Show কোপেনহেগেন বাইক শো এর আয়োজক খ্রিস্টিয়ান রিটটার জানান, বাইক শো’টি আগামী ১৩ই মার্চ এ শুরু হয়ে ১৫ মার্চ পর্যন্ত একটানা চলবে। এশিয়ান নর্ডিক গ্রুফ ‘b’fair’ এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক। এই গ্রুপের প্রকল্প পরিচালক হেনরিক বাক ‘b’fair’ সম্পর্কে বলতে গিয়ে জানান, ‘ডেনমার্কসহ নর্ডিক দেশগুলোতে পরিবেশ-বান্ধব সাইকেলের চাহিদা খুব বেশি। এ দেশে ছোট-বড়, বয়স্ক সবাই কমবেশী সাইকেল ব্যবহার করেন। স্বভাবতঃই এ দেশসমূহে বিপুল সংখ্যক নামীদামী প্রতিষ্ঠান এই সাইকেল ব্যবসা সাথে জড়িত। ‘b’fair’সাইকেল শিল্পে নতুন এক সংযোজন এবং বাজারে নতুন চ্যালেন্জ নিয়ে আবির্ভূত হতে যাচ্ছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এ সাইকেল এর সাফল্যের ব্যাপারে অত্যন্ত আশাবাদী। কারণ, এই সাইকেল যতটা না বানিজ্যিক লাভ বিবেচনায় বাজারজাত হতে যাচ্ছে – তারচেয়েও বেশী ‘শিশু উন্নয়ন’ এবং ‘ফেয়ার ট্রেড’ এর ধারনাকে গুরুত্ব দিয়ে বাজারজাত হবে। এ সাইকেল হতে বিক্রয়লব্ধ টাকার লভ্যাংশ বাংলাদেশের পশ্চাদপদ শিশুদের শিক্ষার উন্নয়নে ব্যয় হবে। বিক্রয়লব্ধ একটি সাইকেলের লাভের টাকা বাংলাদেশের একটি শিশুর পুরো বছরের শিক্ষাব্যয় এবং এক বেলা খাবারের নিশ্চয়তা দেবে বলেও জানালেন তিনি।

B_fair_logo ‘b’fair’এর গুণগত মান নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে হেনরিক বাক জানান, ‘ b’fair সাইকেল ‘ফেয়ার ট্রেড’ এর নির্দেশনা বজায় রেখে উৎপাদিত হচ্ছে। এর উৎপাদন প্রক্রিয়ায় ‘পরিবেশ সংরক্ষণ’ বিষয়গুলোর দিকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। এ সাইকেল এর ডিজাইন করেছেন ডেনমার্কের তথা বিশ্বের খ্যাতির শীর্ষে অবস্থান করা স্থপতি আরনে ইয়্যাকবসেন এর দৌহিত্র স্থপতি টোবিয়াস ইয়্যাকবসেন। আর এই b’fair সাইকেলের যাবতীয় কারিগরি দিক দেখাশুনা করছেন মার্টিন সিলভেস্ট যিনি ডেনমার্ক সাইক্লিস্ট সোসাইটির সদস্য এবং আফ্রিকায় প্রতিবন্ধিদের জন্যে বিশেষ ধরণের সাইকেল নির্মাণ প্রজেক্টের সাথে সম্পৃক্ত। উল্লেখ্য বাংলাদেশের অন্যতম প্রতিষ্ঠান প্রাণ আর এফ এল গ্রুপ এর উৎপাদনের সাথে জড়িত। হেনরিক বাক বলেন, ‘আমরা মিঃ আহসান খান চৌধুরী, পরিচালক, প্রান আর এফ এল এর প্রতি আমাদের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি কারণ তারা আমাদেরকে এই প্রকল্প বাস্তবায়নে সহায়তা দিচ্ছেন এবং অত্যন্ত ভাল মানের সাইকেল উৎপাদন করছেন। বাংলাদেশের মত জনবহুল এবং নিম্ন আয়ের দেশে শিশুদেরকে শিক্ষিত করে তোলা জরুরি, যেন দারিদ্র ঘুচাতে তারাও অবদান রাখতে পারে। কিন্তু অনেক শিশুরাই এই সুযোগ এবং অধিকার থেকে বঞ্চিত। আমাদের ছোট এই প্রকল্প b’fair এর মাধ্যমে এশিয়ান নরডিক গ্রুপ সেই ভাগ্যবিরম্বিত নিস্পাপ শিশুদের স্কুলে যাবার সুযোগ করে দিতে চায়।’

ফেসবুক মন্তব্য