ঢাকা মঙ্গলবার, নভেম্বর ২০, ২০১৮

Mountain View



ভূমিকম্পে মির্জাপুরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ফাঁটল, পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে

Print Friendly, PDF & Email

শাহ্ সৈকত মুন্না, মির্জাপুর (টাঙ্গাইল)প্রতিনিধিঃ পর পর তিন দিনের ভূমিকম্পে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার উত্তর পেকুয়া জাগরণী উচ্চ বিদ্যালয়ের নতুন ভবনে ফাঁটল দেখা দিয়েছে। নতুন ভবনে ফাঁটল দেখা দেওয়ায় কর্তৃপক্ষ ভবনটি পরিত্যাক্ত ঘোষনা করায় শ্রেণী কক্ষের অভাবে পাঠদান চলছে খোলা আকাশের নিচে। গতকাল সোমবার স্কুলে গিয়ে দেখা গেছে আতংকিত ছাত্র-ছাত্রীরা বাহিরে পাঠদান করছে।

mirzapur

বিদ্যালয় সুত্র জানান, টাঙ্গাইল জেলা পরিষদের অনুদানে প্রায় ১০ লাখ টাকা ব্যায়ে অতি সম্প্রতি ভবনটি নির্মান হয়েছে। ঠিকাদারের নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির কারনে নিম্নমানের কাজ হওয়ায় ভবন নির্মানের কয়েক দিন পরই ফাঁটল ধরে। এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা পরিষদে অভিযোগ দেওয়ার পর প্রকৌশলীরা ভবনটি পরিদর্শনে এসে ঘটনার সত্যতা পেয়ে ঠিকাদারকে দ্রুত মেরামতের নির্দেশ দেন। ঠিকাদারের গাফিলতির কারনে ভবনটি মেরামত না হওয়ায় গত তিন দিনের ভূমিকম্পে ঝূঁকিপূর্ণ ভবনটি পুরোপুরি ভাবে চারপাশের দেয়াল ও মেঝে বড় বড় ফাঁটল সৃষ্টি হয়। ফলে তিন শতাধিক ছাত্র-ছাত্রী শ্রেণীকক্ষের অভাবে খোলা আকাশের নিচে পাঠদান করছে।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিসেস শিরীন আক্তার ও বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সভাপতি মোঃ শামসুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা বিদ্যালয়টি দ্রুত মেরামতের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট জোর দাবী জানান।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ জাকির হোসেন মোল্লা বলেন, সরকারী সহায়তা পেলে বিদ্যালয়টিকে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মেরামত করা হবে।

অপর দিকে মির্জাপুরে কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিজয়া ছাত্রী হোস্টেলের ৫ তলা ভবনে ফাঁটল দেখা দেওয়ায় ছাত্রীদের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে। কর্তৃপক্ষ জরুরী সভায় ছাত্রীদের দ্রুত হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছে। গতকাল সোমবার কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে ছাত্রীরা হল ত্যাগ করছে। এদিকে জামুর্কী উচ্চ বিদ্যালয়, গোড়াইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কাটরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভবন ফাঁটল দেওয়ায় ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে আতংক দেখা দিয়েছে।

কুমুদিনী কলেজ কর্তৃপক্ষ এবং হলের ছাত্রীরা জানায়, কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাম্পাসের বিজয়া হলের ৫ তলা ভবনে প্রায় তিন শতাধিক ছাত্রী হোস্টেলে থাকেন। ভূমিকম্পে ঐ ভবনের ৫ তলার দেয়ালের বিভিন্ন অংশে ফাঁটল দেখা দেয়। ফাঁটলের ঘটনা ছাত্রীদের মধ্যে ছড়িয়ে পরলে আতংক দেখা দেয়।

কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. এম এ হালিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ভূমিকম্পে বিজয়া হলের ৫ তলা ভবনের দেয়ালে কিছু অংশে ফাঁটল দেখা দেয়। জরুরী সভা আহবান করে ছাত্রীদের হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুক মন্তব্য