ঢাকা বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৮

Mountain View



বাসর ঘরে বরকে বিষ খাইয়ে হত্যার চেষ্টা, ডাইনী রূপী কনেকে আটক

Print Friendly, PDF & Email

ডেস্ক রিপোর্ট : পছন্দের ছেলের সঙ্গে বিয়ে না দেওয়ায় ঠাকুরগাঁওয়ে এক নব বধূ বাসর ঘরে পানিতে বিষ মিশিয়ে বরকে হত্যার চেষ্টা করেছে। গুরুতর অবস্থায় বরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বরের পরিবারের লোকজন ডাইনী রূপী কনেকে আটক করেছে।

অভিযোগে জানা যায়, ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার রুহিয়ার ঘনিমহেশপুর গ্রামের আঃ রশিদের পুত্র তরিকুল ইসলাম মঙ্গলবার পার্শ্ববর্তী দেবীগঞ্জ ঝাকুয়াপাড়া গ্রামের আব্দুল আলীর কন্যা আয়েশা সিদ্দিকাকে (১৮) কে পারিবারিক মতামতের ভিত্তিতে বিয়ে করে। মঙ্গলবার ভোর ৩ টায় কনেকে নিয়ে নিজ বাড়িতে ফেরে বর তরিকুল ইসলাম। ভোর ৪ টার দিকে নববধূর কাছে বাসর ঘরে যায় সে। একই ঘরে কনের দাদি ও তার দুই ছোট বোনও ছিল। বাসর ঘরে বরকে দুধ ও পান খাওয়ানোর নিয়ম থাকলেও তা না পেয়ে নববধূ বাসর ঘরে বরকে কাছে পেয়ে হাতে তুলে দেয় এক গ্লাস নলকূপের পানি। নববধূ আয়েশা সিদ্দিকা নিজেও এক গ্লাস পানি পান করে এবং বরকে এক গ্লাস তুলে দেয়। নববধূর হাতের পানি পান করার কিছু ক্ষন পরেই শুরু হয় বরের বুকে বিষের যন্ত্রণা। মরন যন্ত্রণার চিৎকারে বাড়ির লোকজন বরকে মুমুর্ষূ অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে ও পরে পার্শ্ববর্তী আটোয়ারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

এদিকে বাসর ঘরে তল্লাসী চালিয়ে দুটি গ্লাস ও একটি বিষের শিশি উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে নববধূকে আটক করে রেখেছে এলাকাবাসি। খবর পেয়ে কনের পিতামাতা সহ পরিবারের লোকজন বরের বাড়িতে হাজির হয়। এ ঘটনায় আজ অনুষ্ঠিতব্য বিয়ের বৌভাত অনুষ্ঠান ভেস্তে যায়। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়ায় ডাইনী কনেকে এক নজর দেখার জন্য বরের বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড় জমে উঠেছে।

এ ব্যাপারে কনে আয়েশা সিদ্দিকাকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি মুখে ঘোমটা টেনে কথা বলতে অস্বীকার করেন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মনিরুল হক বাবু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরো জানান, মেয়ের অভিভাবকরা ঘটনাস্থলে আসায় স্থানীয়ভাবে বিষয়টি আপোষ রফার চেষ্ঠা চলছে। সৌজন্যে : সময়ের কণ্ঠস্বর

ফেসবুক মন্তব্য