ঢাকা বৃহস্পতিবার, নভেম্বর ১৫, ২০১৮

Mountain View



টাঙ্গাইলে অনুষ্ঠান বয়কট করে অনিয়মের প্রতিবাদ

Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার অর্জুনা ইউনিয়ন পরিষদের বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট অনুষ্ঠনে চেয়ারম্যান ও সচিবের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগে বাজেট অধিবেশন বয়কট করে অনিয়মের প্রতিবাদ জানিয়েছে এলাকাবাসী। এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অনিয়মের বিষয়ে অবহিত করতে গেলে তিনি দ্রুত বাজেট অধিবেশন ত্যাগ করে চলে যান বলে অভিযোগ করেন এলাকাবাসী।

জানা যায়, উপজেলার অর্জুনা ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছিলেন ওই এলাকার সাধারণ জনগণ। গত একমাস আগে ইউনিয়ন পরিষদকে কার্যকর ও চেয়ারম্যান এবং সচিবের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ এনে প্রশাসনের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করে এলাকাবাসী। লিখিত অভিযোগের পর প্রশাসন থেকে কার্যকর কোন ভূমিকা গ্রহন না করায় বৃহস্পতিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত প্রাক-বাজেট অনুষ্ঠনে চেয়ারম্যান ও সচিবের অনিয়মে বিরুদ্ধে প্রশাসনের নিরব ভূমিকা পালন করার অভিযোগ এনে বাজেট অধিবেশন বয়কট করে অভিনব পন্থায় প্রতিবাদ করেছে এলাকাবাসী। এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে লিখিত অভিযোগের বিষয়ে অবহিত করতে গেলে তিনি কোন প্রকার আলোচনা না করইে দ্রুত বাজেট অধিবেশন ত্যাগ করেন।

এবিষয়ে অজুর্না হাজী ইসমাইল খাঁ কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুস ছাত্তার খান বলেন, অর্জুনা ইউনিয়ন পরিষদের একটি ভবন থাকলেও সে ভবন থেকে কোন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয় না। চেয়ারম্যান ও সচিব নিজেদের ব্যক্তিগত স্থানে বসে দায়সারা কাজ পরিচালনা করে। তথ্যসেবা প্রদানের জন্য সরকারিভাবে ইউনিয়ন পরিষদে যে সামগ্রী দেয়া হয়েছে তা ব্যবহার হয়না। ইউনিয়ন পরিষদের মূল্যবান সামগ্রী চেয়ারম্যান তার নিজের সম্পত্তি মনে করে নিজ বাসায় রাখেন। জেলা ও উপজেলা প্রশাসন বরাবর লিখিত অভিযোগ করেও কোন ফল না পেয়ে এলাকাবাসী এমন প্রতিবাদ করেছে ।

অর্জুনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব আলী মোল্লা গ্রামবাসীর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়ন পরিষদে বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকায় সেবা দেয়া যাচ্ছে না। খুব শীগ্রই পরিষদে বিদ্যুতের ব্যবস্থা করা হবে। এতে চলমান অবস্থার উন্নয়ন ঘটবে।

ভূঞাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. হেলালুজ্জামান সরকার বলেন, উপজেলা পরিষদের পূর্ব নির্ধারিত সমন্বয় সভা থাকায় বাজেট অনুষ্ঠান ত্যাগ করতে হয়েছে। তাদের অভিযোগ সঠিক নহে।

ফেসবুক মন্তব্য