,


দেলদুয়ারে থানা ঘেরাও: সংঘর্ষ,পুলিশসহ আহত ১১

Print Friendly, PDF & Email
 নিজস্ব প্রতিনিধি , টাঙ্গাইল: ভোট পুনর্গণনার দাবিতে জেলার দেলদুয়ার থানা ঘেরাও করে উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ স্বতন্ত্র প্রার্থী সাজ্জাত হোসেন আজাদের সমর্থকরা।  এসময় পুলিশ ও সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। এতে দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) ওসমান গণিসহ ১১ সমর্থক আহত হন।

সোমরার সাড়ে দশটার দিকে এসব ঘটনা ঘটে।

চতুর্থ ধাপের নির্বাচনে সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (বহিষ্কৃত) ইঞ্জিনিয়ার সিরাজুল ইসলাম মল্লিক ৩ হাজার ৬২৯ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়। ঘোড়া প্রতীকে সাজ্জাত হোসেন আজাদ পায় ৩ হাজার ৩৭৯ ভোট। এ প্রেক্ষিতে আজাদের সমর্থকরা ভোট পুনর্গণনার দাবি করতে এসে থানা ঘেরাও ও ভাঙচুর করায় পুলিশের সঙ্গে তাদের সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় ইটপাটকেলের আঘাতে দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) ওসমান গণি আহত হয়। পরে পুলিশ গুলি ছুড়ে। টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপসহ লাঠিচার্জ করে। এসময় আহত হয় প্রায় ২০ জন সমর্থক।

অন্যদিকে সমর্থকদের আরেকটি গ্রুপ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে লক্ষ্য করে উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনে হামলা করে। এসময় উপজেলা চত্বরে থাকা প্রায় ২০/২৫টি মোটর সাইকেল ভাঙচুর করে। এসময় কয়েকটি মোটরসাইকেলে আগুন দেয়া হয়।

পরে টাঙ্গাইল থেকে অতিরিক্ত পুলিশ, দাঙ্গা পুলিশ, র‌্যাব ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে অবস্থা নিয়ন্ত্রণে আনে।

সহকারী পুলিশ সুপার (সদর) হাফিজ উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

দেলদুয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাহাদত হোসেন কবির জানান, আটিয়া ইউনিয়নের ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী সাজ্জাত হোসেন আজাদ তার কাছে ভোট পুনর্গণনার দাবি করেন। তিনি তাকে পরামর্শ দেন জেলা নির্বাচন অফিসের মাধ্যমে এর সুষ্ঠু সমাধান হবে।

দেলদুয়ার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) ওসমান গণি জানান, এখনও মামলা হয়নি। সৌজন্য :  ঢাকাটাইমস২৪.কম

Comments

comments