,


দেলদুয়ারে ৩ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ২০

Print Friendly, PDF & Email

মুহা. জোবায়েদ মল্লিক বুলবুল, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :  টাঙ্গাইলের দেলদুয়ারে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ৩ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে মোশারফ খান(১৬) নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। নিহত মোশারফ গজিয়াবাড়ী গ্রামের আশরাফ আলী খানের ছেলে। এসময় আহত হয়েছে অন্তত ২০ জন। বুধবার সকাল ১১ টার দিকে দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়া ইউনিয়নের গজিয়াবাড়ী, বিন্দুরিয়া ও হিংগানগর চরপাড়া গ্রামবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

tangail

দেলদুয়ার থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) চাঁন মিয়া ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে বিন্দুরিয়া গ্রামের ১ একর ৬৯ শতাংশ জমি নিয়ে ৩ গ্রামের মধ্যে বিরোধ চলছিল। বুধবার সকালে বিন্দুরিয়ার গ্রামের লোকজন ধান কাটতে গেলে গজিয়াবাড়ীর লোকজন বাধা দেয়। এ সময় হিংগানগর চরপাড়া গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে এগিয়ে আসে। এক পর্যায়ে তিন গ্রামের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। সংঘর্ষে গজিয়াবাড়ী গ্রামের আশরাফ আলী খানের ছেলে মোশারফ হোসেন খান(১৬) ঘটনা স্থলেই মারা যায়।

এ সময় বিন্দুরিয়া গ্রামের আজাহার মিয়ার ছেলে লাবু মিয়া(২৫), খালেক মিয়ার ছেলে রেজাউল করিম(৩৫), মৃত হেফাজ উল্লার ছেলে কালু মিয়া(৬৫), আলীম মিয়ার ছেলে সাইফুল(৪০) , রফিকউল্লার ছেলে আব্দুল হক (৫০), তুলা মিয়ার ছেলে মজিবর(৪৫), হায়াত আলীর ছেলে ধলা মিয়া(৫০), গজিয়া বাড়ী গ্রামের মৃত জহির উদ্দিনের ছেলে ওমর আলী(৩২), আনোয়ার হোসেনের ছেলে আলামিন মিয়া(২০), মুন্নাফ মিয়ার ছেলে বান্দু মিয়া(৬০), মইনউদ্দিনের ছেলে শামসুল মিয়া (৪৫), লালচাঁন মিয়ার ছেলে আব্দুল আলিম(৩৫) আহত হয়।

আহতদের প্রথমে দেলদুয়ার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাদেরকে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তাদের মধ্যে আব্দুল হক, বান্দু মিয়া ও মজিবরের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ওসি জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মোশারফের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখাতে দেলদুয়ার থানা পুলিশ ও টাঙ্গাইল র‌্যাব-১২ ঘটনাস্থলে অবস্থান নিয়েছে।

Comments

comments